কিটো ডায়েটে যা যা খেতে পারবেন Good food for keto diet

good-food-for-keto-diet healthy food and tips

কিটো ডায়েট হলো কম কার্ব বা শর্করা, উচ্চ ফ্যাটযুক্ত ডায়েট (keto diet food)। এটি রক্তে শর্করার এবং ইনসুলিনের মাত্রা হ্রাস করে এবং শরীরের বিপাক  বা শক্তির জন্য শর্করার (কার্ব ) আর পরিবর্তে জমা থাকা ফ্যাট ব্যবহার করে ।

যে কোনও ডায়েট  শুরু হওয়ার পরে খাবার (keto diet food) নির্বাচন করা যেমন গুরুত্বপূর্ণ ঠিক তেমনি কিছু খাবার বাদ দিয়ে চলা গুরুত্বপূর্ণ । তো চলুন দেখে নেয়া যাক কিটো ডায়েট এ  কি কি খাদ্য আমরা  খেতে পারবে আর কি কি আমাদের এড়িয়ে চলা উচিত ।

কিটো ডায়েট যে খাবার গুলো বাদ দিতে হবে

যে খাবার গুলোতে শর্করার পরিমাণ বেশি সেগুলো খুবই  সীমিত পরিমাণে খেতে হবে। কিটোজেনিক ডায়েটে যে খাবার গুলো কমাতে বা বাদ দিতে হবে সেই খাবার গুলোর তালিকা নিচে রয়েছে:

  • মিষ্টি জাতীয় খাবার : সোডা বা সফট ড্রিঙ্কস, ফলের রস, কেক, আইসক্রিম, ক্যান্ডি ইত্যাদি
  • শস্য বা স্টার্চ : গম বা আটা ভিত্তিক পণ্য, চাল, পাস্তা, সিরিয়াল ইত্যাদি
  • ফল : স্ট্রবেরি  জাতীয়  ফল বাদে বাকি ফল গুলো বাদ দিতে হবে ।
  • মটরশুটি বা শিং জাতীয় ফল : মটর, কিডনি বিন, ডাল, ছোলা ইত্যাদি
  • রুট শাকসবজি এবং কন্দ : আলু , মিষ্টি আলু , গাজর, পার্সনিপস ইত্যাদি । অর্থাৎ যে সবজি গুলা মিষ্টি জাতীয় ।
  • কিছু মশাল বা সস : বারবিকিউ সস, মধু সরিষা, তেরিয়াকি সস, কেচাপ ইত্যাদি etc.
  • অস্বাস্থ্যকর চর্বি : প্রক্রিয়াজাত উদ্ভিজ্জ তেল, মেয়োনিজ ইত্যাদি
  • অ্যালকোহল : বিয়ার, ওয়াইন, অ্যালকোহল, মিশ্রিত পানীয়
  • চিনিবিহীন ডায়েট খাবার : চিনি মুক্ত ক্যান্ডিজ, সিরাপ, পুডিং, মিষ্টি, মিষ্টি ইত্যাদি

মোট কথা হলো কিটো ডায়েট মিষ্টি  জাতীয় ফল ও বেশি শর্করা যুক্ত  শাক-সবজি, খাবার গুলো এড়িয়ে চলুন।

কিটো ডায়েট যে খাবার গুলা খেতে পারবেন (keto diet food)

নিম্নলিখিত খাবারগুলি কেটো ডায়েটে খাওয়া যেতে পারে যা আপনার ডায়েট এবং স্বাস্থ্যের জন্য উপকারী  এবং খাবার গুলো হলো :

  • মাংস : লাল মাংস, স্টেক, হ্যাম, সসেজ, বেকন, মুরগি ​​এবং টার্কি
  • চর্বিযুক্ত মাছ : স্যামন, ট্রাউট, টোনা এবং ম্যাকারেল
  • ডিম : চারণভূমি বা ওমেগা -3 পুরো ডিম
  • মাখন এবং ক্রিম : ঘাস খাওয়ানো মাখন এবং ভারী ক্রিম
  • পনির : চেডার, ক্রিম, নীল বা মোজারেল্লা
  • বাদাম এবং বীজ : বাদাম, আখরোট, ফ্ল্যাক্সসিড, কুমড়োর বীজ, চিয়া বীজ ইত্যাদি
  • স্বাস্থ্যকর তেল : এক্সট্রা  ভার্জিন জলপাই তেল, নারকেল তেল এবং অ্যাভোকাডো তেল
  • অ্যাভোকাডোস : পুরো অ্যাভোকাডোস বা নতুনভাবে তৈরি গুয়াকামোল
  • কম কার্ব ভেজি : গ্রিন ভেজি, টমেটো, পেঁয়াজ, মরিচ ইত্যাদি
  • মিশ্রণ : লবণ, মরিচ, গুল্ম এবং মশলা

মোট কথা আপনি কিটো ডায়েটে এ মাংস, মাছ, ডিম, মাখন, বাদাম, স্বাস্থ্যকর তেল, অ্যাভোকাডোস এবং প্রচুর পরিমাণে কম কার্ব যুক্ত  শাক সবজি খেতে পারবেন ।

আশা করি বুঝতে পেরেছেন, আপনি কিটো ডায়েট এ কি কি  খাবার খেতে পারবেন আর কি কি পারবেন না। যদি লেখাটি আপনার ভালো লেগে থাকে তাহলে অবশ্যই নিচে কমেন্ট করতে ভুলবেন না ।

Note: যে কোনো ডায়েট শুরুর আগে ডাক্তার বা বিশেষজ্ঞের পরামর্শ নিন । এতে করে ভবিষ্যতে স্বাস্থ্যের কোনো ঝুঁকি থাকবে না |

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *